Friday, February 14th, 2020




বাড়ির কাজ জমা না দেওয়ায়……

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় পাঁচ শিশুশিক্ষার্থীকে থুতু খাওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তাঁকে তাৎক্ষণিকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা নেওয়া হয়েছে।

৯ ফেব্রুয়ারি উপজেলার গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নের শ্রীকালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ।

ওই শিক্ষকের নাম মো. মোশারফ তালুকদার। তিনি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর এসব শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা লিখিত অভিযোগ দেন। পরে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ৯ ফেব্রুয়ারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোশারফ তালুকদার ৪র্থ শ্রেণির ক্লাস নিচ্ছিলেন। ক্লাসে বাড়ির কাজ জমা না দেওয়ায় তিনি পাঁচ শিক্ষার্থীকে জোর করে থুতু খাওয়ান। বিদ্যালয় ছুটির পর পাঁচ শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে নিজ নিজ অভিভাবকের কাছে বিষয়টি জানায়।

পরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা বিদ্যালয়ে যান। তাঁরা এ বিষয়ে অভিযোগ জানাতে চাইলে তাঁদের পরদিন বিদ্যালয়ে আসতে বলা হয়। পরের দিন অভিযুক্ত শিক্ষক বিদ্যালয়ে না আসায় অভিভাবকেরা ক্ষুব্ধ হন। তবে ওই শিক্ষকের পক্ষে প্রধান শিক্ষক অভিভাবকদের কাছে ক্ষমা চান।

গত বুধবার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর সহকারী শিক্ষক মোশারফ তালুকদারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন ভুক্তভোগী পাঁচ শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মোশারফ তালুকদার বলেন, ‘বিষয়টি এমন রূপ নেবে ভাবতে পারিনি। তবে তিলকে তাল বানানোর জন্য একটা পক্ষ মরিয়া হয়ে উঠেছে।’

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ. হান্নান বলেন, ‘ঘটনার দিন আমি বিদ্যালয়ের কাজে উপজেলায় ছিলাম। পরে এ ঘটনার নিন্দা জানাই। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছে ওই শিক্ষকের হয়ে ক্ষমা চাই।’

এ বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সাহাবউদ্দিন বলেন, ‘কিছুদিন আগে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অন্য এক ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। আর নতুন ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে লিখিত অভিযোগ হাতে পাই। তাৎক্ষণিকভাবে ওই শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়। বিভাগীয় মামলাও নিয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Advertisement