Friday, April 2nd, 2021




আজ বেলকুচিতে দৃষ্টিনন্দন মসজিদের উদ্বোধন

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে দৃষ্টিনন্দন আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ। সিরাজগঞ্জ-এনায়েতপুর সড়কের বেলকুচি পৌর সদরে অবস্থিত। আজ জুমার নামাজের মধ্য দিয়ে এর উদ্বোধন করা হবে।

২০১২ সালের সেপ্টেম্বর মাসের দিকে মুকুন্দগাতী গ্রামের কৃতী সন্তান শিল্পপতি আলহাজ মোহাম্মদ আলী সরকার বেলকুচি পৌর ভবনসংলগ্ন দক্ষিণে এক একর জায়গার ওপর তার ছেলে আল-আমান ও মা বাহেলা খাতুনের নামে ‘আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ’ কমপ্লেক্স নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। তিনি নিজস্ব অর্থায়নে মসজিদটি নির্মাণ করেন। এটি নির্মাণে সময় লেগেছে ৯ বছর। শুরু থেকে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৪৫ জন শ্রমিক কাজ করেছেন। রহমত গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ মোহাম্মদ আলী সরকার এ মসজিদ কমপ্লেক্সসহ বাহেলা খাতুন চক্ষু হাসপাতাল নির্মাণ করেছেন। এই হাসপাতাল দীর্ঘদিন ধরে বিনা মূল্যে এলাকার অসহায় দুস্থ রোগীদের সেবা দিয়ে আসছে। এই শিল্পপতি গত বছরের আগস্ট মাসে ইন্তেকাল করেছেন। এরপর তার পরিবার মসজিদের নির্মাণকাজ শেষ করেছেন।

মসজিদের খাদেম আব্দুল মান্নান বলেন, এ মসজিদে ছাই রঙের বিশাল আকৃতির মনোরম একটি গম্বুজ রয়েছে। এছাড়া মেঝেতে সাদা রঙের ঝকঝকে তকতকে টাইলস ও পিলারগুলোতে মার্বেল পাথর জড়ানো। তৃতীয় তলায় গম্বুজের সঙ্গে লাগানো চায়না থেকে আনা একটিসহ অন্যান্য স্থানে বেশ কয়েকটি আলোঝলমল ঝাড়বাতি লাগানো হয়েছে। দুই পাশে নির্মাণাধীন ১১ তলা (১১০ ফিট) উচ্চতার মিনার।

মসজিদ নির্মাণের মূল দায়িত্বপালনকারী আলহাজ ওয়াজেদ আলী জানান, এখানে ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের থাকার জন্য মসজিদের পাশে ১০ তলা ভবনে নিজস্ব কোয়ার্টার। পাঠাগার ও শৌচাগার রয়েছে। সেই সঙ্গে মসজিদের প্রবেশ পথের দুই সিঁড়ির পাশে কাচে ঘেরা অটো ফিল্টার করা পানি দিয়ে ওজুর ব্যবস্থা আছে।

এ বিষয়ে বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল জানান, প্রথম দেখাতেই যে কারো দৃষ্টি কাড়ে এ মসজিদটি। এটা নিছক উপাসনালয় নয়। পর্যটকের কাছে এই মসজিদের নির্মাণশৈলী বেশ আকর্ষণীয়। ব্যস্ত সড়কে যাতায়াতকারী যে কেউ প্রথম দেখাতেই থমকে দাঁড়ান। পৌর সদরে হওয়ায় এরই মধ্যে মসজিদ কমপ্লেক্স ঘিরে পর্যটকদের আনাগোনা বেড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ