Monday, January 25th, 2021




সেরাম থেকে দেশে আসলো চুক্তির ৫০ লাখ টিকা

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কেনা তিন কোটি ডোজ করোনা টিকার প্রথম চালানের ৫০ লাখ ডোজ দেশে এসে পৌঁছেছে। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১১টার দিকে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিশেষ ফ্লাইটে ভারতের পুনে থেকে দিল্লি হয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। সিরামের ‘এক্সক্লুসিভ ডিস্ট্রিবিউটর’ বেক্সিমকো ফার্মার মাধ্যমে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই টিকা দেশে আসলো।

বিমানবন্দরে আগে থেকেই বেক্সিমকোর গাড়ি প্রস্তুত রাখা হয়েছিল। ওই গাড়িতে করে টিকা নিয়ে যাওয়া হবে টঙ্গিতে বেক্সিমকোর ওয়্যার হাউজে। সেখাসেই সংরক্ষণ করা হবে ভ্যাকসিনগুলো।

ভ্যাকসিনবাহী বেক্সিমকোর মিনি কাভার্ড ভ্যানগুলোকে কঠোর পুলিশ প্রহরায় নিয়ে যাওয়া হবে। বিমানবন্দর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. তাজুল গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিমানবন্দর থানার একটি ও উত্তরা পশ্চিম থানার একটি মোট দু’টি টিম আব্দুল্লাহপুর পর্যন্ত ভ্যাকসিনের মিনি কাভার্ড ভ্যানগুলো স্কোয়াড করে নিয়ে যাবে। এরপর গাজীপুর জেলা পুলিশের টিম আব্দুল্লাহপুর থেকে নিয়ে যাবে।’

গতকাল রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান (পাপন) বলেছিলেন, ভ্যাকসিন দেশে আসার পর ল্যাব টেস্টের পর স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী সময়মতো দেশের ৬৪ জেলায় পৌঁছে দেয়া হবে।

ভারত সরকার যে দামে ভ্যাকসিন পাচ্ছে বাংলাদেশও একই দামে পাচ্ছে উল্লেখ করে পাপন বলেন, চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশই সবচেয়ে কম দামে ভ্যাকসিন পাচ্ছে।

পাঁচ দিন আগে ভারতের উপহার হিসেবে ২০ লাখ টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। আর সেরাম থেকে ছয় মাসে তিন কোটি টিকা কেনার চুক্তি আছে বেক্সিমকোর। অন্য দিকে কোভ্যাক্স থেকে দেশের ২০ শতাংশ মানুষের জন্য টিকা আসার সম্ভাবনা রয়েছে। এর বাইরে আরো টিকা কেনার পরিকল্পনা আছে সরকারের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ