Friday, November 20th, 2020




নির্মাণাধীন ভবন থেকে ৩১ ককটেল উদ্ধার

রাজধানীর উত্তরায় নির্মাণাধীন একটি ভবন থেকে ৩১টি ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে। এরইমধ্যে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করেছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম (সিটিটিসি) ইউনিটের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল।

শুক্রবার বিকেলে উত্তরা-১০ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর সড়কের ওই ভবনে অভিযান চালানো হয়। এর আগে নাশকতার চেষ্টায় জড়িত অভিযোগে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে দুইজনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে ককটেলের ব্যাপারে জানা যায়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনার কাজী শফিকুল আলম বলেন, উত্তরার কামারপাড়া এলাকা থেকে শুক্রবার মামুন ও সুমন নামে যুবদলের দুই নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বাড়িটি খোঁজে বের করে পুলিশ। এরপর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে সেখানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় বেশকিছু তাজা ককটেল পাওয়া যায়।

এদিকে একটি সূত্র বলছে, ঢাকা-১৮ আসনে উপ-নির্বাচনের দিন ভোটগ্রহণ চলাকালে ওই এলাকায় কয়েকটি বোমা বিস্ম্ফোরিত হয়। সেই ঘটনার সঙ্গে এর যোগসূত্র রয়েছে। ওই মামলায় এর আগে গ্রেপ্তারদের কাছে এ ব্যাপারে আভাস মেলে। পরে আরও দু’জনকে গ্রেপ্তারের পর বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়।

সূত্রমতে, নির্বাচনের দিন ওই ককটেলগুলোরও বিস্ম্ফোরণ ঘটানোর কথা ছিল। কিন্তু কোনো কারণে দুর্বৃত্তরা সেই সুযোগ পায়নি। পরে অন্য কোনো স্থানে নাশকতায় এগুলো ব্যবহার করার পরিকল্পনা ছিল।

সিটিটিসির বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রহমত উল্লাহ চৌধুরী বলেন, নির্মাণাধীন ভবনে দুটি শপিং ব্যাগে মোট ৩১টি ককটেল রাখা ছিল। সতর্কতার সঙ্গে সেগুলো বের করে পর্যায়ক্রমে নিষ্ক্রিয় করা হয়। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলে এ অভিযান। তবে ককটেলগুলো সাধারণ মানের, খুব শক্তিশালী কিছু ছিল না।

উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা বলেন, ডিবির মাধ্যমে তথ্য পেয়ে থানা পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে বাড়িটি ঘিরে ফেলে। নিরাপত্তার স্বার্থে স্থানীয়দের কাছে ভিড়তে দেওয়া হয়নি। পরে ডিবি ও বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের সদস্যরা সেখানে যোগ দেন। উদ্ধার করা ককটেলগুলো সেখানেই নিষ্ক্রিয় করা হয়।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, সেখানে বোমা রয়েছে বলে প্রথমে তথ্য পাওয়া যায়। সেই বোমা কতটা শক্তিশালী তাৎক্ষণিকভাবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ কারণেই প্রথমে বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। পরে চলাচল নিয়ন্ত্রণ করে ভেতরে যান বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা। সুত্র: সমকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ