Friday, October 9th, 2020




যে কারণে ভারতের পর পাকিস্তানেও নিষিদ্ধ হলো ‘টিকটক’

ভারতের পর এবার পাকিস্তানেও ব্যান করা হল জনপ্রিয় চীনা ভিডিও-শেয়ারিং অ্যাপ ‘টিকটক’। শুক্রবারই সে দেশের টেলিকমিউনিকেশন অথোরিটি ‘অনৈতিক এবং অশ্লীল’ কন্টেন্টের অভিযোগ তুলে নিষিদ্ধ করে দেয় অ্যাপটি।

পাকিস্তানের টেলিকমিউনিকেশন অথোরিটি এক বিবৃতি জারি জানায়, বিগত কিছু দিন ধরেই নানাবিধ অশ্লীল এবং অনৈতিক ভিডিও প্রকাশ করায় ‘টিকটক’-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠছিল। কিছু মাস আগেই জনপ্রিয় এই ভিডিও মেকিং এবং শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মকে ওয়ার্নিং দিয়ে ফাইনাল নোটিশ পাঠিয়েছিল পাকিস্তান।

পিটিএ অর্থাৎ পাকিস্তানের টেলিকমিউনিকেশন অথোরিটি তাদের বিবৃতিতে আরও জানাচ্ছে যে, ‘টিকটক’কে সেই নোটিশ পাঠানোর পর ‘যথেষ্ট সময়’ দেওয়া হয়েছিল। শুধু তাই নয়, বেশ কিছু কন্টেন্ট তুলে নিয়ে, পাকিস্তানে কন্টেন্ট সংক্রান্ত নতুন নিয়ম করার অনুরোধও জানিয়েছিল পাকিস্তানের টেলিকমিউনিকেশন অথোরিটি। কিন্তু ‘টিকটক’ সেই নিয়মাবলীর কিছুই পালন করেনি। ‘টিকটক’ বন্ধ করতে বাধ্য হয় ইমরান খানের সরকার।
উল্লেখ্য, সীমান্তে সংঘাতের পরই নিরাপত্তা ঝুঁকি ও তথ্য পাচারের শঙ্কায় ভারত ৫৯টি চীনা অ্যাপ বন্ধ করে দেয়। যার মধ্যে সবার ওপরেই রয়েছে ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটক।

সূত্র : ইন্ডিয়া টিভি ও পাকিস্তান টুডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ