Friday, September 25th, 2020




জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর বাংলায় ভাষণ পূর্তিতে স্মারক ডাকটিকিট

জাতিসংঘের ২৯তম সাধারণ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম বাংলায় ভাষণ দেওয়া উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করা হয়েছে।

শুক্রবার ভাষণের ৪৬তম বার্ষিকী উপলক্ষে নিজ দপ্তরে এ স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

এ সময় স্মারক ডাকটিকিটের পাশাপাশি একটি উদ্বোধনী খাম, ডাটাকার্ড ও বিশেষ সিলমোহর প্রকাশ করা হয়।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, স্মারক ডাকটিকিটের মূল্য ১০ টাকা। আর উদ্বোধনী খাম এবং ডাটাকার্ডের মূল্য যথাক্রমে ১০ ও ৫ টাকা।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ও বাংলা ভাষার জন্য এক অবিস্মরণীয় দিন। জাতিসংঘের ২৯তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে প্রথম ভাষণ দেন বঙ্গবন্ধু। তার মাত্র আটদিন আগে ১৯৭৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর সাধারণ অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে বাংলাদেশ জাতিসংঘের ১৩৬তম দেশ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়। বঙ্গবন্ধুই প্রথম রাষ্ট্রনায়ক যিনি জাতিসংঘে মাতৃভাষা বাংলায় বক্তব্য দিয়ে বাংলাভাষাকে বিশ্ব সভায় মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেন। সেদিন সাধারণ অধিবেশনের সভাপতি বঙ্গবন্ধুকে অনুরোধ করেন ইংরেজিতে বক্তব্য দেওয়ার জন্য। বঙ্গবন্ধু বিনয়ের সঙ্গে বলেছিলেন ‘মাননীয় সভাপতি আমি আমার মাতৃভাষা বাংলায় বক্তব্য দিতে চাই’। জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা ছয়টি, তার মধ্যে বাংলা ভাষা নেই। বঙ্গবন্ধুর অনুরোধে অধিবেশনের সভাপতি বঙ্গবন্ধুকে বাংলায় বক্তব্য দেওয়ার অনুমতি দেন। আজ সেই ঐতিহাসিক ২৫ সেপ্টেম্বর। বাঙালি জাতি ও বাংলাভাষার ইতিহাসের গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন।

অবমুক্ত করা স্মারক ডাকটিকিট ও উদ্বোধনী খাম পরবর্তীতে ঢাকা জিপিও এর ফিলাটেলিক ব্যুরো ও অন্যান্য জিপিও এবং প্রধান ডাকঘরসহ দেশের সব ডাকঘর থেকে বিক্রি করা হবে বলে জানানো হয়েছে। উদ্বোধনী খামে ব্যবহারের জন্য চারটি জিপিওতে বিশেষ সিলমোহরের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ